জগন্নাথপুরে যুক্তরাজ্য প্রবাসীর জায়গা দখন করে রাস্তা নির্মাণ, থানায় অভিযোগ দায়ের

0
210

জগন্নাথপুর প্রতিনিধি ::সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরের পৌর এলাকায় লুদরপুর গ্রামের ইনাতনগর এলাকার যুক্তরাজ্য প্রবাসীর পুর্বপুরুষদের কবর ঘেষে ও বসতবাড়ির জমি একই এলাকার সাজনুর মিয়া গংদের বিরুদ্ধে জোরপূর্বক দখল করে রাস্তা নির্মাণের অভিযোগ উঠেছে।

এ ব্যাপারে ভুক্তভোগীর পক্ষে তাদের আত্নীয় মাে. লেচু মিয়া বাদী হয়ে জগন্নাথপুর থানার অফিসার ইনচার্জ বরাবরে একটি লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছেন।

জানা গেছে, সুনামগঞ্জ জেলার জগন্নাথপুর পৌর এলাকার ২নং ওয়ার্ডের লুদরপুর গ্রামের যুক্তরাজ্য প্রবাসী আব্দুর নুর, আব্দুর রহিম, দুধু মিয়া, ছালিক মিয়া, সাবির মিয়া, ছাদিক মিয়া, রাশেদা খাতুন, জোবেদা খাতুন, রহিমা বিবি, সুনামগঞ্জ জেলার জগন্নাথপুর, উপজেলার ঐহারগাই, মৌজার জে.এল নং-৬৯, খতিয়ান নং-৬৭, দাগ ২২৮, ২৭৫, ৪৪৯, ৪৫০, ৪৫১, ৪৫২, জমির পরিমান ৯৫ শতক বাড়ী ও পুকুর রকম ভূমি ভোগদখলীয় পৈত্রিক ও খরিদা সুত্রে মালিক। প্রবাসী আব্দুর নুর এর পরিবারের লোকজন যুক্তরাজ্য বসবাসের কারণে তাদের নাতী মােঃ লেছু মিয়াকে তাদের জায়গা জমি ও বাড়ী ঘর দেখাশোনার দায়িত্ব দেওয়া হয়।

গত ০৬ ফেব্রুয়ারি দুপুর অনুমান ১২ ঘটিকায় জগন্নাথপুর পৌরসভার লুদরপুর ইনাতনগর, সাজনুর মিয়ার নেতৃত্বে হুমায়ুন মিয়া, শাকিল মিয়া, সাবির মিয়া, কমল মিয়া, শামসুল উদ্দিন, জোরপূর্বক উল্লিখিত প্রবাসীর দখলীয় মালিকানা বসতবাড়ির ও কবরের জায়গাতে প্রায় ৫০ ফুট দৈর্ঘ্য ও ৮ ফুট প্রস্থের রাস্তা নির্মাণ করে। লেচু মিয়া খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক বিষয়টি তার নানা (প্রবাসী আব্দুর নুরকে) মোবাইলে জানান এবং রাস্তা নির্মাণে বাধা নিষেধ করতে গেলে তাকে তারা উত্তেজিত হয়ে অকথ্য অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ সহ ভয়ভীতি ও প্রাণনাশের হুমকি দেয়। এবং তারা আরো বলে বেশি মাতামাতি করলে বর্ণিত তপশীলের বাড়ীটিও বেদখল করারও হুমকি দেয়।

অভিযুক্ত সাজনুর মিয়ার সাথে যোগাযোগ হলে তিনি বলেন এই রাস্তাটি লন্ডন প্রবাসী আব্দুর নুর গংদের সাথে আলাপ আলোচনা করে স্থানীয় নেতার মাধ্যম কাজ করা হয়েছে এর পরেও কেন আমাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ বিষয়টি বুঝতে পারছিনা।

এ ব্যাপারে জগন্নাথ পুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো: ইখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরীর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, দরখাস্তের প্রেক্ষিতে এলাকায় শান্তিশৃঙ্খলা বজায় রাখার স্বার্থে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়ে রাস্তা নির্মাণ না করার জন্য তাদেরকে নিষেধ করা হয়েছে এবং যেহেতু এ বিষয়টি জায়গা জমির ব্যাপার সেটার জন্য আদালতে যাওয়া পরামর্শ দিয়েছেন।

উত্তর দিন

দয়া করে এখানে আপনার মন্তব্য লিখুন
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন