জামালপুরে প্রতারকচক্রের সদস্য গ্রেফতার॥ ভ্রাম্যমাণ আদালতের সাজা

0
169

জামালপুর প্রথিনিধি:: জামালপুর সদর উপজেলার শরিফপুর ইউনিয়নের গোদাশিমলা গ্রামে মহিলাদের গর্ভবতী ভাতার কার্ড করে দেওয়ার নামে সমাজসেবা অফিসের নাম ব্যবহার করে দীর্ঘদিন যাবৎ প্রতারণা করে আসছিল একটি প্রতারক চক্র। গতকাল গোদাশিমলা গ্রামের সাধারণ মানুষ প্রতারক চক্রের সদস্যদের বিষয়ে জানতে পেরে শহরের কাঁচাসড়া গ্রামের গণি মিয়ার পুত্র ওই চক্রের সদস্য কানন (৩০) নামে একজনকে আটক করে। আটকের সংবাদ পেয়ে শরিফপুর ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম আলম ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফরিদা ইয়াছমিন, জেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা ইলিয়াস মল্লিক সহ বিভিন্ন জায়গায় জানালে তাদের মাধ্যমে জামালপুর সদর থানা পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে ভ্রাম্যমান আদালতে সোপর্দ করে। ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মাহমুদা বেগম। আদালতে প্রতারক কাননকে ১ মাসের কারাদ- দেওয়া হয়। সেই সাথে ৫০০ টাকা জরিমান করা হয়। এ বিষয়ে শরিফপুর ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম আলম বলেন, দীর্ঘদিন যাবৎ একটি প্রতারক চক্র আমার এলাকায় সাধারণ মানুষকে সমাজ সেবার বিভিন্ন সেবা প্রাপ্তির লোভ দেখিয়ে প্রতারণা করে আসছিল। বিষয়টি সাধারণ মানুষ জানতে পেরে প্রতারক চক্রের ওই সদস্যকে আটক করে। পরে আমি সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, সমাজ সেবা কর্মকর্তা ও সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে অবগত করলে তাকে গ্রেফতার করা হয়। এই ধরনের প্রতারক চক্র থেকে সাবধান হওয়ার জন্য আমি ইউনিয়নবাসীর সকলের সহযোগিতা কামনা করছি। এ বিষয়ে জেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা ইলিয়াস মল্লিক বলেন, আমাদের অফিসে কানন নামে কেউ নেই। সে একজন প্রতারক। ভ্রাম্যমান আদালতের পরিচালক সহকারী কমিশনার (ভূমি) মাহমুদা বেগম বলেন, প্রতারক চক্র সাধারণ মানুষকে প্রতিনিয়ত প্রতারণা করে আসছে। তাই ১৮৬০/১৮৬ ধারায় তাকে সাজা প্রদান করা হয়েছে।

 

 

উত্তর দিন

দয়া করে এখানে আপনার মন্তব্য লিখুন
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন