তাহিরপুরে সাংবাদিককে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন, সিলেট বিভাগ জুড়ে প্রতিবাদের ঝড়,বাংলাদেশ প্রেসক্লাব ও সিলেট সাংবাদিক ইউনিয়নের নিন্দা

0
95

তাহিরপুর প্রতিনিধি:: সিলেট বিভাগে আবারও নির্যাতনের শিকার হলেন স্থানীয় এক সাংবাদিক। সিলেট বিভাগের সুনামগঞ্জ জেলার তাহিরপুরে গাছের সঙ্গে বেঁধে মধ্যযুগীয় কায়দায় বর্বর নির্যাতন করা হয় ঐ সাংবাদিককে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কাউকে আটক করতে পারেনি স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন।

সময় টিভি বাংলার তাহিরপুর প্রতিনিধি জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, সুনামগঞ্জের তাহিরপুর সীমান্ত নদী যাদুকাটার তীর কেটে বালু উত্তোলনের ছবি তুলতে গিয়ে হামলার স্বীকার হয়েছেন তাহিরপুর প্রেসক্লাবের সাংগঠনিক সম্পাদক ও দৈনিক সংবাদ এর তাহিরপুর উপজেলা প্রতিনিধি কামাল হোসেন। সাংবাদিক কামাল হোসেন উপজেলার বাদাঘাট ইউনিয়নের কামড়াবন্ধ গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে।

তাহিরপুর প্রেসক্লাবের সাংগঠনিক সম্পাদক কামালকে বেঁধে নির্মম নির্যাতনের একটি ভিডিও ক্লিপ ইতােমধ্যে সামাজিক যােগাযােগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। এতে সিলেটের সর্বত্রই তোলপাড় শুরু হয়েছে।

জানা গেছে, প্রতিদিনের ন্যায় যাদুকাটা নদীর তীর কেটে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করছে একটি চক্র। খবর পেয়ে সাংবাদিক কামাল হোসেন ছবি তুলতে গেলে ঘাগটিয়া গ্রামের রইস মিয়া, দ্বীন ইসলাম ও মাহমুদুলের নেতৃত্বে বালু খেকো চক্রটি তার উপর অতর্কিত হামলা করে মারাত্মক আহত করে। পরে কামালকে নদীর পাড় থেকে টেনে-হিছড়ে ঘাগটিয়া বাজারে এনে গাছের সঙ্গে রশ্মি দিয়ে বেধে রেখে নির্যাতন করতে থাকে।

খবর পেয়ে স্থানীয় এক সাংবাদিক এবং কামল হোসেনের পরিবার বাদাঘাট পুলিশ ফাড়িকে অবগত করলে ফাড়িঁর ইনচার্জ এসআই মাহমুদুল হাসানের নেতৃত্বে পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থলে গিয়ে তাকে উদ্ধার করে তাহিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। তবে কামালের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাহিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে তাকে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। বর্তমানে তিনি সেখানে চিকিৎসাধীন।

আহত সাংবাদিক কামাল হোসেন ঘটনার পরপরই জানান, নদীতে তীর কেটে অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলনের ছবি তুলতে গেলে বালু খেকো ঘাগটিয়া গ্রামের রইস মিয়া, দ্বিন ইসলাম, মাহমুদুল চক্ররা তার উপর হামলা করে তাকে মারাত্মক আহত করে এবং তার মোবাইল,ক্যামেরা ও মোটরসাইকেল তারা ছিনিয়ে নেয়।

খবর পেয়ে স্বানীয় এক সাংবাদিক ও কামাল হোসেনের পরিবার বাদাঘাট ফাড়িঁকে অবহিত করলে বাদাঘাট পুলিশ ফাড়িঁর ইনচার্জ এসআই মাহমুদুল হাসান বলেন, সংবাদ পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে তাকে উদ্ধার করা হয়েছে।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত সাংবাদিক কামালের খোয়া যাওয়া মোটরসাইকেলটি উদ্ধার করেছে পুলিশ। তবে এ ঘটনায় জড়িতদের কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি। দোষীদের ধরতে অভিযান চালাচ্ছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

এদিকে, কামাল হোসেনের মধ্যযুগীয় কায়দায় এমন অমানুষিক নির্যাতনে তাহিরপুর উপজেলাসহ সিলেট-সুনামগঞ্জজুড়ে বইছে নিন্দা ও প্রতিবাদের ঝড়। এ ঘটনায় সাংবাদিকরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিন্দা জ্ঞাপন করে চরম ক্ষোভ প্রকাশ করছেন। দোষীদের দ্রুত গ্রেফতার করে শাস্তির আওতায় নিয়ে আসার জন্য আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন সাংবাদিকরা।

বাংলাদেশ প্রেসক্লাব সিলেট বিভাগীয় আহবায়কের নিন্দা: সুনামগঞ্জের তাহিরপুরে সাংবাদিক কামাল হোসেনকে নির্যাতনের ঘটনায় নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশ প্রেসক্লাব সিলেট বিভাগীয় আহবায়ক কামরুল হাসান জুলহাস। মঙ্গলবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে কামাল হোসেনের উপর হামলাকারীদের অবিলম্বে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনতে প্রশাসনের প্রতি আহবান জানান।

সিলেট সাংবাদিক ইউনিয়নের নিন্দা ও প্রতিবাদ: সুনামগঞ্জের তাহিরপুরে সাংবাদিক কামাল হোসেনকে নির্যাতনের ঘটনায় নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন সিলেট সাংবাদিক ইউনিয়ন (এসইউজে)’র সভাপতি কামরুল হাসান জুলহাসসহ ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দ। মঙ্গলবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে কামাল হোসেনের উপর হামলাকারীদের অবিলম্বে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনতে প্রশাসনের প্রতি আহবান জানান। অন‍্যতায় সাংবাদিক সমাজ রাস্তায় নামতে বাধ‍্য হবে বলে হুশিয়ারি উচ্চারণ করেন। নেতৃবৃন্দরা হলেন সংগঠনের সহসভাপতি বদরুল রহমান বাবর, সাধারন সম্পাদক সৈয়দ আকরাম আল সাহান, অর্থ সম্পাদক সাজ্জাদ আহমদ সাজু ও সাংগঠনিক সম্পাদক শাহান আহমদ চৌধুরী প্রমূখ।

উত্তর দিন

দয়া করে এখানে আপনার মন্তব্য লিখুন
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন