ফিলিস্তিনে হামলা অব্যাহত রাখার ঘোষণা ইসরায়েলের

0
106

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: সব কূটনৈতিক প্রচেষ্টাকে ব্যর্থ করে দিয়ে সপ্তম দিনের মতো ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ ভূখণ্ড গাজায় হামলা অব্যাহত রেখেছে ইসরায়েল।অঞ্চলটিতে সাম্প্রতিক সময়ের ভয়াবহ এ হত্যাযজ্ঞ বন্ধে এক সপ্তাহেও কার্যকর কোনো ব্যবস্থা নিতে পারেনি বিশ্ব সম্প্রদায়। শনিবার গাজায় হামলা অব্যাহত রাখার ঘোষণা দিয়েছেন ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু।রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়, পরিস্থিতির জন্য ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী সশস্ত্র সংগঠন হামাসকে দায়ী করেছেন নেতানিয়াহু। তিনি বলেন, ‘আমরা অভিযানের মাঝামাঝি পর্যায়ে রয়েছি। অভিযান শেষ হয়নি। যতক্ষণ প্রয়োজন, এ অভিযান চলবে।’নেতানিয়াহুর দাবি, বেসামরিক প্রাণহানি এড়িয়ে কেবল হামাসের স্থাপনা লক্ষ্য করেই হামলা চালাচ্ছে ইসরায়েল।গত এক সপ্তাহে অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকা ও পশ্চিম তীরসহ ফিলিস্তিনের বিভিন্ন অঞ্চলে ইসরায়েলের বিমান হামলায় প্রাণ গেছে দেড় শতাধিক মানুষের। এদের মধ্যে ৪১ জনই শিশু।এমন পরিস্থিতিতে সংকট নিয়ে আলোচনায় রোববার বৈঠক বসছে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ।গাজায় বেসামরিক প্রাণহানি ও ধ্বংসযজ্ঞের ভয়াবহতায় শনিবার হতাশা ও উদ্বেগ জানান মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস।এক বিবৃতিতে ইসরায়েলকে নির্বিচারে হামলা বন্ধের আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ‘বেসামরিক স্থাপনা ও সংবাদমাধ্যমের ওপর হামলা আন্তর্জাতিক আইনের স্পষ্ট লঙ্ঘন এবং যেকোনো মূল্যে এটি বন্ধ করতে হবে।’পরিস্থিতির ভয়াবহতায় আলোচনার জন্য ইসরায়েলে গেছেন যুক্তরাষ্ট্রের দূত হ্যাডি আমর। যদিও কোনো অগ্রগতি হয়নি।এর আগে গাজায় এক বছরের অস্ত্রবিরতির জন্য মিসরের দেয়া প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করে ইসরায়েল। যদিও হামাস শুক্রবার প্রস্তাবটি গ্রহণ করে বলে জানিয়েছে কায়রো।উত্তেজনা পরিহারে শনিবার ইসরায়েল ও হামাসকে সহনশীল থাকার আহ্বান জানিয়েছেন জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচআরসির প্রধান মিচেল ব্যাশেলে।এর আগে ‘দীর্ঘমেয়াদে শান্তি প্রতিষ্ঠার’ লক্ষ্য অর্জন হওয়া পর্যন্ত গাজায় বোমা হামলা অব্যাহত রাখার ঘোষণা দেন ইসরায়েলের প্রতিরক্ষামন্ত্রী বেনি গানৎজ।

উত্তর দিন

দয়া করে এখানে আপনার মন্তব্য লিখুন
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন