মাধবপুর চা বাগান লেকে চান্দের গাড়ি চলাচলে বাঁধা দিচ্ছেন ম‍্যানেজার মুন্না

0
226

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি :: মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল কমলগঞ্জ এলাকার অধিকাংশই পর্যটন পর্যটন এলাকা হিসেবে খ্যাত। দেশ বিদেশ থেকে আসা পর্যটকরা চাঁদের গাড়ি যা এই অঞ্চলে (জিপ) নামে পরিচিত। এই গাড়িতে চলতে পছন্দ করেন অধিকাংশ পর্যটকরা। এ গাড়ির গুনাগুন হচ্ছে যাতায়াত খরচ খুবই কম এবং একটি গাড়িতে একসাথে অনেক জন বসতে পারে। দীর্ঘদিন থেকে এসব গাড়ি শ্রীমঙ্গল-কমলগঞ্জ ও বড়লেখা এলাকার মাধবকুণ্ডসহ অনেক পাহাড়ি অঞ্চলে চলাফেরা করে আসছে। এই অঞ্চলের পর্যটনে এসব গাড়ির ভূমিকা অতুলনীয়।

এসব গাড়ির চালকরা জানান তারা এই অঞ্চলে আসা পর্যটকদের স্বল্প খরচে সেবা দিয়ে থাকেন। কিন্তু মাধবপুর চা-বাগানে সদ্য নিযুক্ত ম্যানেজার মুন্না নামের এক ব্যাক্তি মাধবপুর লেকে যাতায়াতের রাস্তা দিয়ে মাধবপুর চা-বাগানে অন্যান্য গাড়ী চলাচলে কোন প্রকার বাধা না দিলেও দুঃখের বিষয় চান্দের গাড়ি (জিপ) চলাচলে বাধা সৃষ্টি করছেন ।
হঠাৎ মাধবপুর চা বাগানের ম্যানেজারের এমন বাধার মুখে গাড়ি চালকগন পরিবার-পরিজন নিয়ে পড়েছে বিপাকে। (৮ফেব্রুয়ারি) সোমবার তারা পর্যটক নিয়ে মাধবপুর লেকে গেলে ম্যানেজার মুন্না সেখান থেকে তাদের ফিরিয়ে দেন। পরে সকল জীপ চালকরা তাদের গাড়ি নিয়ে সমস্যা সমাধানের জন্য শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে ছুটে আসেন। তারা জানান শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ নজরুল ইসলাম অত্যন্ত আন্তরিকতার সাথে কথা বলেন এই সমস্যা অচিরে সমাধানের জন্য সচেষ্ট ভূমিকা পালন করবেন বলে আশ্বস্থ করেন।

উত্তর দিন

দয়া করে এখানে আপনার মন্তব্য লিখুন
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন