শ্রীমঙ্গলে শ্বাষরুদ্ধ অভিযান চালিয়ে ৩টি গাড়ি ও ১টি মোটরসাইকেল উদ্বার

0
132

শ্রীমঙ্গল সংবাদদাতা:: মৌলভীবাজার জেলায় অভিযান পরিচালনা কালে চৌকস পুলিশ পরিদর্শক তদন্ত মোঃ হুমায়ুন কবির শ্রীমঙ্গল থানার নেতৃত্বে এস আই আলমগীর সহ তিন দিনের অভিযান পরিচালনা কালে শ্রীমঙ্গল থানাধীন মাইজদী শেখবাড়ী মাদ্রাসার সামনে হতে পালিয়ে যেতে চাইলে পিছু করে গত ১৯ফেব্রুয়ারি তারিখে রাত অনুমান ৯ ঘটিকায় ১টি লাল রঙের পুরাতন প্রুবক্স চোরাই গাড়ি সহ আসামী ১। জাহিদ হাসান জিতু (২৭), পিতা-টেনু মিয়া, সাং- হাজীপুর, ২। জসিম মিয়া (৩৩), পিতা-মনির মিয়া, সাং-লামুয়া, উভয় থানা-শ্রীমঙ্গল, জেলা-মৌলভীবাজার, ৩। সাইদুল ইসলাম (২৫), পিতা-বশির মিয়া, সাং- ভাড়াভিম, থানা-মৌলভীবাজার সদর, জেলা-মৌলভীবাজার এবং ৪।লিটন মিয়া (৩০), পিতা-মৃত করিম মিয়া, সাং-লামুয়া, থানা-শ্রীমঙ্গল, জেলা-মৌলভীবাজার তাদের দেওয়া তথ্য মতে অভিযানে অন্য আরেকটি রুপ নেয়, ধারাবাহিক ভাবে একে একে খোকন অটো ওর্য়াকসপ, জুগিটর, মৌলভীবাজার হতে ১টি সাদা রংয়ের পুরাতন ণোহা গাড়ী ও মুমিন মিয়ার বাড়ি হতে আরেকটি সিলভার রংয়ের পুরাতন এক্স করুলা ও কসাই জমিস মিয়া,কাপাসিয়া ওখান থেকে আরেকটি মোটর সাইকেল উদ্ধার করা হয়।অভিয়ান চলাকালীন কোন তথ্য প্রকাশ করা হয়নি, অভিযান ফলোপ্রসু হওয়ার পর গনমাধ্যম সহ সকলের নিকট প্রকাশযোগ্য গতকাল রাতে প্রেস সকলকে অবহিত করেন।চৌকস পুলিশ পরিদর্শক হুমায়ূন কবির এও বলেন এই চক্রটি দেশের বিভিন্ন স্থান হতে গাড়ি এনে অত্র্য এলাকায় মৌলভীবাজার জেলা সহ হবিগঞ্জ সহ বিভিন্ন স্থানে তাদের লোক জরিত আছেন এবং এই চক্রের মূল হোতা রনি এবং আনোয়ার। তাদেরকে আইনের আওতায় আনা শুধু সময়ের বিষয় মাত্র চেষ্টা অব্যাহত আছে।

রবিবার ২১ ফেব্রুয়ারি আটককৃত আসামিদের বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা রুজু পূর্বক যথাযথ পুলিশ স্কটের মাধ্যমে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়। রেজিস্ট্রেশন বিহীন এবং কাগজপত্র বিহীন গাড়ি না কেনার জন্য সকলে অনুরোধ করা হলো।চোরাইকৃত গাড়ির বিষয় সহ অন্যান্য অনৈতিক আইনবিরোধী তথ্য দিয়ে সাহায্য করার জন্য সকল জেলা বাসীর সাহায্য কামনা করেন।

 

 

উত্তর দিন

দয়া করে এখানে আপনার মন্তব্য লিখুন
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন